1. admin@muktijoddhatv.xyz : admin :
  2. mainadmin@muktijoddhatvonline.com : mainadmin :
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১২:৫৩ অপরাহ্ন

কিশোরদের ঝগড়া গড়াল দুই গ্রামে, সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে আহত পুলিশ

মোঃ রাজু , আলফাডাঙ্গা উপজেলা প্রতিনিধি
  • Update Time : শনিবার, ১৩ মে, ২০২৩
  • ১৯১ Time View

কিশোরদের ঝগড়া গড়াল দুই গ্রামে, সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে আহত পুলিশ

ফুটবল খেলা নিয়ে কিশোরদের ঝগড়া গড়িয়েছে দুই গ্রামের মধ্যে। এক পর্যায়ে তা রূপ নেয় বড় সংঘর্ষে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে উল্টো হামলার শিকার হন পুলিশের দুই সদস্য।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলা সদর

কিশোরদের ঝগড়া গড়াল দুই গ্রামে, সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে আহত পুলিশ

ফরিদপুর আলফাডাঙ্গায় ফুটবল খেলা নিয়ে কিশোরদের ঝগড়া গড়িয়েছে দুই গ্রামের মধ্যে। এক পর্যায়ে তা রূপ নেয় বড় সংঘর্ষে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে উল্টো হামলার শিকার হন পুলিশের দুই সদস্য।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলা সদর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত দুই পুলিশ সদস্য হলেন- আলফাডাঙ্গা থানার এসআই আবু শহীদ ও এএসআই চন্দন সমাদ্দার।

এদিকে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় করা মামলায় দুই গ্রামের চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা হলেন- বোয়ালমারী উপজেলার মাগুরা গ্রামের মোসলেম মাস্টারের ছেলে আল আমীন হোসেন ওরফে পলাশ, পান্নু শেখের ছেলে মো. সাজ্জাদ শেখ, আলফাডাঙ্গা পৌরসভার শ্রীরামপুরের মিজানুর রহমান খানের ছেলে ইয়াসিন খান, কবীর মোল্যার ছেলে শাকিল মোল্লা।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সংঘর্ষের এ ঘটনার সূত্রপাত আলফাডাঙ্গা পৌরসভার শ্রীরামপুর ও বোয়ালমারী উপজেলার মাগুরা গ্রামের কিশোরদের ফুটবল খেলা নিয়ে বিরোধ থেকে। সেই বিরোধকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আলফাডাঙ্গা সদর বাজারের চুয়াল্লিশের মোড়ে মাগুরা গ্রামের ৫০ থেকে ৬০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শ্রীরামপুরের কয়েকজনকে ধাওয়া দেয়।

পরে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শ্রীরামপুরের লোকজন এসে পাল্টা ধাওয়া দেয়। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার এক পর্যায়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে লোকাল বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন ব্রিজের গোড়ায় পৌঁছালে অতর্কিতভাবে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। এতে আলফাডাঙ্গা থানার এসআই আবু শহীদ ও এএসআই চন্দন সমাদ্দার গুরুতর আহত হন। পরে তাদেরকে আলফাডাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এরপর অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়।

এ ঘটনায় আলফাডাঙ্গা থানার এসআই প্রকাশ বোশ বাদী হয়ে সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় ৩১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ২৫ থেকে ৩০ জনকে আসামি করা হয়।

আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু তাহের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ‘সরকারি কাজে বাধা দেওয়ায় একটি মামলা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত চারজনকে গ্রেপ্তার করে শনিবার তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। বর্তমানে দুই এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।
তিনি বলেন, আজ বিকালে মাগুরা গ্রাম ও শ্রীরামপুর গ্রামবাসীর মধ্যে বোয়ালমারী থানা ও আলফাডাঙ্গা থানার জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss