1. admin@muktijoddhatv.xyz : admin :
  2. mainadmin@muktijoddhatvonline.com : mainadmin :
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০১:০১ পূর্বাহ্ন

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে জমিসহ ঘর চাইলেন নদী ভাংতি ভূমিহীন অসহায় বীর মুক্তিযুদ্ধের স্ত্রী রেনু বেগম।

জাহিদ হোসেন,স্টাফ রিপোর্টার, মুক্তিযোদ্ধা টেলিভিশন
  • Update Time : সোমবার, ১৯ জুন, ২০২৩
  • ৫৮ Time View

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে জমিসহ ঘর চাইলেন নদী ভাংতি ভূমিহীন অসহায় বীর মুক্তিযুদ্ধের স্ত্রী রেনু বেগম।

জাহিদ হোসেন স্টাফ রিপোর্টার দিঘলিয়া খুলনা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কাছে জমিসহ ঘর চাইলেন নদী ভাংতি ভূমিহীন অসহায় বীর মুক্তিযোদ্ধা স্ত্রী । চাঁদপুর সদর চাঁদপুর পৌরসভার 2নং ওয়ার্ডের পশ্চিম জাফরাবাদ গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধার কালু খার অসহায় স্ত্রী রেনু বেগম তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে এবং পরিবার পরিজন নিয়ে খুব কষ্টের মাঝে বসবাস করছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম কালু খাঁন ১৯৭১সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে সেদিন তিনি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করিয়াছিলেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা কালু খার লাল মুক্তিবার্তা নং-০২০৫০১০৩২১, গেজেট নং-৪২৩, মুক্তিযোদ্ধার সাবেক সনদ নম্বর নং-ম১৩৯১৫৪, এবং বর্তমান স্মার্ট ডিজিটাল মুক্তিযোদ্ধা নম্বর -০১১৩০০০০৭৩১. মুক্তিযোদ্ধা ডাটাবেজ আইডি নম্বর-০২০৩০১০২৬৭। বীর মুক্তিযোদ্ধা কালু খার জন্মকালীন বাসস্থান ২০০৯ সালে রাক্ষসী মেঘনা ছোবলে সব কিছু লন্ডভন্ড হয়ে যায়। এখন সেই মুক্তি উদ্ধার পরিবার পরিজনরা আছেন মুক্তিযোদ্ধার পিতার অল্প কিছু জমিতে কোনরকম একটি কুড়েঘর নির্মাণ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। কিন্তু তাও আবার সে জমি নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা চাচাতো ভাইদের সঙ্গে মামলা চলছে চাঁদপুর কোর্টে। বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবার রেনু বেগম জমিরস একটি ঘর পাওয়ার জন্য অনেকবার আবেদন করিয়াছেন কিন্তু তাতে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। এই হল মুক্তিযোদ্ধা বান্ধব স্বাধীনতার বিপক্ষের কিছু সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীগণ। এ স্বাধীন দেশে কোন অসহায় গরীব মুক্তিযোদ্ধা পরিবার পরিজনদের মূল্য নেই। স্বাধীন বাংলার কিছু অসাধু বাঙালির নিকটে। মুক্তিযোদ্ধাদের একমাত্র প্রকৃতভাবে ভালবাসেন এই দেশে গরিব দুঃখীর নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার। তিনি হচ্ছেন মুক্তিযোদ্ধাদের একমাত্র ভরসা ও অভিভাবক। মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী সাহেব সরকারের ঘোষণায় সকল অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বাড়ি নির্মাণ করে দিচ্ছেন কিন্তু যাদের জমি নেই ঘর নেই তাদের কি অবস্থা। তারা কি কখনো জমিসহ বীর নিবাস পাবেন। এটার মতামত এখনো কোন কোন ডিসি নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে তার তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি। কিন্তু তাতে কি কোন গরীব অসহায় মুক্তিযোদ্ধার পরিবার পরিজন রা জমিসহ বীর নিবাস পাবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিকট আমার আকুল আবেদন এই যে জমিসহ একটি বীর নিবাস বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়ার জন্য জোরপূর্বক দাবি জানাচ্ছি আমি মুক্তিযোদ্ধাদের স্ত্রী রেনু বেগম। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের স্ত্রীর দুই ছেলে দুই মেয়ে ও নাতি-নাতনিদের নিয়ে বর্তমান সময়ে অনেক কষ্টে জীবন যাপন করছে তার বড় ছেলে মোহাম্মদ মানিক খান বেকারভাবে জীবন যাপন করছে। আর ছোট ছেলে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে সংসার চালাচ্ছেন। সরকারি একটি চাকরির জন্য অনেক আবেদন করিয়াছেন মুক্তিযোদ্ধার বড় ছেলে ও ছোট ছেলে তাতে কোন সুযোগ পায়নি ৩০% কোটায়। আমরা বড়ই অসহায় পরিবার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার দেওয়া সম্মানী মুক্তিযোদ্ধা ভাতায় আমরা কোন রকম বেঁচে আছি। বীর মুক্তিযোদ্ধা কালুখার মৃত্যুর পর থেকে আত্মীয়-স্বজনদের অবহেলায় আজ এই পর্যন্ত এসে দাঁড়িয়েছে ছেলেমেয়ে নিয়ে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার সহযোগিতায় আমলে সরকার ক্ষমতা আসার পর পর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানের সাথে বাঁচার সুযোগ করে দিয়েছেন আপনি। আজ আমরা ভালো আছি মুক্তিযোদ্ধা পরিবার পরিজনরা। বীর মুক্তিযোদ্ধা কালু খারাপ পরিবার রা ভূমিহীন মাথা গোজার ঠাঁই নেই মামলা করা জমিতে ঘরে থাকাটা বড় কষ্টের বিষয়। মুক্তি উদ্ধার পরিবার হিসাবে একটি জমিসহ বাড়ি পাইলে জীবনে আর কোন কিছুর চাওয়া থাকবে না মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার নিকট। পরিবার-পরিজন নিয়ে ভালোভাবে থাকতে পারবো। বিনীত বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী রেনু বেগম গ্রাম:পশ্চিম জাফরাবাদ পোস্ট অফিস :পুরান বাজার থানা ও
জেলা:চাঁদপুর.

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss