1. admin@muktijoddhatv.xyz : admin :
  2. mainadmin@muktijoddhatvonline.com : mainadmin :
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০১:১৮ পূর্বাহ্ন

চাঁদপুরের মাটিতে মানবতার ফেরিওয়ালার পরিচয় পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিক।

জাহিদ হোসেন,স্টাফ রিপোর্টার, মুক্তিযোদ্ধা টেলিভিশন
  • Update Time : শনিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১৩২ Time View

চাঁদপুরের মাটিতে মানবতার ফেরিওয়ালার পরিচয় পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিক।

জাহিদ হোসেন স্টাফ রিপোর্টার মুক্তিযোদ্ধা টিভি। চাঁদপুরের মাটিতে মানবতার ফেরিওয়ালার পরিচয় পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিক। চাঁদপুর জেলাতে একজন মানবিক পুলিশের পরিচয় পাওয়া গেছে বলে জানতে পারছি, সেই পুলিশ সদস্যের বাড়ি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলায়। তিনি দীর্ঘদিন চাঁদপুরে সদরে জজ কোর্ট ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্বে আছেন। মানবতার ফেরিওয়ালা আপন হোসেন মানিক ২০০৯ সাল থেকে গরিব অসহায় মানুষের সেবা দিয়ে আসছেন। গত বৃহস্পতিবার দিন সকালে ম্যাজিস্ট্রেট জজকোর্ট প্রাঙ্গণে অনেক দিন যাবৎ তিনি একজন ভারসাম্যহীন অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে পান। ওই লোকটি পাগল অবস্থায় কিছু না খেয়ে দিনের পর দিন এখানে পরে আছে। পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিকের মনে মায়া চলে আসে, তখন তিনি ওই ব্যক্তিকে ধরে মাথার চুল কেটে সাবান দিয়ে গোসল করিয়ে পরিষ্কার করে নতুন জামা কাপড় পরিধান করে ওষুধ কিনে দেয়। এই মানবতার কাজগুলো চাঁদপুরের মিডিয়ার চোখে পড়ে যায় তারপর থেকে তিনি চাঁদপুরবাসীর কাছে সুপরিচিত মানবতার স্থান দখল করে নিন। আমরা চাই চট্টগ্রাম জেলার সেই পুলিশ কনস্টেবল শওকত ও চাঁদপুরের পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিকের মতো সব উপজেলায় এমন পুলিশ সদস্যরা অনন্য মানবতার ফেরিওয়ালারা অসহায় পড়ে থাকা রাস্তাঘাটে মানুষের সেবা যত্ন দিয়ে সুস্থ করে তোলে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হোক। এটাই হবে ইসলামের আদর্শবান কাজ ও মানুষ হিসেবে তার পরিচয়। সেই ভারসাম্যহীন ব্যক্তির নাম জানা গেছে তার নাম হচ্ছে রফিক, তার বাড়ি মানিকগঞ্জ জেলা সিংগাইর উপজেলায় মমতাজ বাড়ির এলাকার পাশে। এই মানবিক ভারসাম্যহীন মানুষটির সেবা করে পুলিশ সদস্য চাঁদপুরবাসীকে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন যে, তোমরা যেখানে থাকো না কেন এমন অসুস্থ মানুষ অবহেলায় বিভিন্ন স্থানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে তাদের সেবা দিয়ে যত্ন দিয়ে সেসব ভারসাম্যহীন মানুষের জন্য পরিশ্রম করে ,তাদের পরিবারের ঠিকানায় পৌঁছে দেওয়া এটা মানুষ হয়ে মানুষের দায়িত্ব ও কর্তব্য বলে মনে করি। পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিক মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করে অনেক পরিবারের কাছে তাদের আত্মীয়-স্বজনকে সুস্থ করে তোলে নিজের বেতনের টাকা খরচ করে অসহায়দের মাঝে । এতে করে তিনি মনে অনেক আনন্দ পান। এরকম ভারসাম্যহীন রোগীর সংখ্যা ৪৬ জনের মত তিনি তাদের আত্মীয়স্বজনের কাছে সুস্থ করে তুলে নিজের অর্থায়নে পৌঁছে দিয়েছেন। চাঁদপুরের জজকোর্ট কর্মরত পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিক মানবিক ভারসাম্যহীন বা শারীরিক অসুস্থ দেখলেই তিনি ছুটে যান তাদের মাঝে। ভারসাম্যহীন রোগীদের কাছ থেকে কৌশলে তাদের মুখ থেকে কথা বের করে নেন। নিয়মিত তাদের খোঁজ খবর রাখেন। রাস্তাঘাটে পড়ে থাকা কোন অসুস্থ রোগীরা সাধারণ মানুষ অথবা কারো সাথে সহজে কথা বলতে চায় না।কিন্তু এই পুলিশ সদস্য মনের ভালোবাসা দিয়ে আত্মীয়-স্বজনের মত মিশে কথা বলেন আপন হোসেন মানিক। তার ভালো কাজের জন্য সারাদেশে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। পুলিশ সদস্য ২০১৬ সালে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কনস্টেবল পদে যোগদান করেন। তিনি যেখানে যান সেখানেই মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। ভারসাম্যহীন মানুষের পাশে ছুটে বেড়ানো এটা তার পেশা এবং নেশা হয়ে যায়। পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিক মুক্তিযোদ্ধা টিভির সাংবাদিকে মুঠোফোন বলেন যে, ছোটবেলা থেকে আমার মানবিক কাজগুলো করিতে আমার অনেক ভালো লাগে। চাঁদপুর জেলা সবার মাঝে এসব ধরনের কাজ করিতেন পুলিশ সদস্য আপন হোসেন মানিক।তিনি কোন কিছুতে যত বড় ধরনের ভারসাম্যহীন রোগী হোক না কেন তিনি ভয় পেতেন না। আমার মুক্তিযোদ্ধা টিভির পক্ষ থেকে এবং মানবিক পুলিশ সদস্য হিসেবে অনেক অনেক ভালোবাসা ও দোয়া রইল। আমরা মানিক ভাইয়ের মত এমন মানবিক পুলিশ প্রতি উপজেলায় দেখতে চাই। এতে পুলিশের উপর মানুষের যে খারাপ প্রভাবটা এটা দূর হয়ে ভালোবাসার আবেগটা চলে আসবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss