1. admin@muktijoddhatv.xyz : admin :
  2. mainadmin@muktijoddhatvonline.com : mainadmin :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৩:৩৩ পূর্বাহ্ন

চৌদ্দগ্রামে রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শন ছাড়াই মুক্তিযোদ্ধার দাফন

শরীফ ইমাম, কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম উপজেলা প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধা টেলিভিশন
  • Update Time : রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৭৮ Time View

চৌদ্দগ্রামে রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শন ছাড়াই মুক্তিযোদ্ধার দাফন
চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শন ছাড়াই মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জুনাব আলীকে দাফন করা হয়েছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুক্তিযোদ্ধার ৫ ছেলে, আত্মীয় স্বজন ও এলাকাবাসী। শনিবার বিকেল পৌনে ৪টা তিনি পৌর এলাকার উত্তর ফালগুনকরা গ্রামে নিজ বাড়িতে ইন্তেকালের পর রাত ৯টায় নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
মুক্তিযোদ্ধার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মুক্তিযুক্তকালীন সময়ে ১৯৭১ সালে তৎকালিন চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি কমান্ডার আলী আশরাফের নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন মোঃ জুনাব আলী। ওই সময় তিনি মাটিরাঙ্গা তবলছড়ি বড়বিল এলাকায় পরিবার নিয়ে বসবাস করছিলেন। মৃত্যুকালে মোঃ জুনাব আলীর বয়স ৭৩ বছর। তাঁর মুক্তিযোদ্ধা পরিচিতি নং-০১১৯০০০৫৫৩২, বেসামরিক গেজেটে নং-২৫২, মুক্তিযোদ্ধাদের ভারতীয় তালিকায় নং-২১৭৫৫ এবং লাল মুক্তিবার্তায় নং-২০৮০৫০১১৩। তিনি নিয়মিত মুক্তিযোদ্ধা ভাতা ভোগ করেছেন। মোঃ জুনাব আলী দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। শনিবার বিকেল পৌনে ৪টায় চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার উত্তর ফালগুনকরা গ্রামের নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্না ইলাইহে রাজিউন। অভিযোগ উঠেছে, মৃত্যুর পরপরই উপজেলা প্রশাসনকে বিষয়টি অবগত করলেও রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শনে কোন ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন।
মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জুনাব আলীর পুত্র শাহ আলম বাবু জানান, ‘বাবার মৃত্যুর পরপরই আমি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক দপ্তর সম্পাদক মোঃ ইয়াছিনকে অবগত করি। আধা ঘন্টা পরে তিনি আমাকে জানান, ইউএনও’কে জানানো হয়েছে। তিনি বলেছেন, রাতের বেলায় রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শনের বিধান নেই। এ কথা শোনার পর আমরা খুবই ব্যধিত হয়েছি’।
একই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও বিশিষ্ট ব্যাংকার আবুল হাসান আরিফ বলেন, ‘আমাদের গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জুনাব আলীকে মৃত্যুর পর রাষ্ট্রীয় মর্যাদা ছাড়াই দাফন করা হয়েছে-এ খবর জানার পর আমি মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে ব্যথিত ও মর্মাহত হয়েছি। লাল-সবুজের পতাকার জন্য যারা স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন, তাদের প্রতি এই অবহেলা কোনভাবেই কাম্য নয়’।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাশেম বলেন, ‘সূর্য ডুবার পর রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শনের কোন নিয়ম নেই। আমরা খবর পেয়েছি-সূর্য ডুবার একটু আগে’।
চৌদ্দগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ তানভীর হোসেন বলেন, ‘প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধাই রাষ্ট্রীয় সম্মান পাওয়ার যোগ্য। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জুনাব আলীর মৃত্যুর সংবাদটি কেউ আমাকে অবগত করেনি। আমরা প্রত্যেক মৃত্যুর সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথেই উপজেলা প্রশাসন থেকে সম্মান প্রদর্শনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়’।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss