1. admin@muktijoddhatv.xyz : admin :
  2. mainadmin@muktijoddhatvonline.com : mainadmin :
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২:৫১ পূর্বাহ্ন

মাটিরাঙ্গা উপজেলার রসুলপুরে গৃহকর্মীকে জিম্মির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

খাগড়াছড়ি জেলা প্রতিনিধিঃ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক সুমন
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪
  • ১৮ Time View

মাটিরাঙ্গা উপজেলার রসুলপুরে গৃহকর্মীকে জিম্মির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলায় রসুলপুর এলাকায় গৃহকর্মী সুমী আক্তার কে জিম্মি করে স্বামীকে ফাঁসানোর ঘটনায় গৃহকর্তা হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন ক‌রে‌ছেন ভুক্তভোগি সুমী আক্তার ।

২৪ এপ্রিল (বুধবার)বিকালে গুইমারা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব‌্য পাঠ করেন ভুক্ত ভো‌গি ঐ নারী ।

গত ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার এ ঘটনায় বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৮/৩০ ধারা মামলা দায়ের করেন । মামলার এজহারে সুমী আক্তার উল্লেখ করেন, বিগত ৮/৯ মাস পূর্বে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক ও সাংসারিক বিষয়-আশয় নিয়ে ভুল বুঝাবুঝি, মন-মালিন্যের এক পর্যায়ে সে রাগ করে স্বামীর বাড়ী ছেড়ে পিত্রালয়ে চলে আসে এবং উক্ত ঘটনার বিষয়ে সুমী আক্তার তাহার স্বামীর নিকট হতে দেনমোহর ও খোরপোষ আদায়ের জন্য স্থানীয় নামধারী কথিত হাসান আল মামুন এর নিকট পরামর্শ চাইলে সেই সুযোগে সুমী আক্তারকে সংশ্লিষ্ট থানায় নিয়ে কোন কিছু বুঝতে না দিয়ে তাহার স্বামীর বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারী মামলা দায়ের করায় যাহা পরর্বতীতে নারী ও শিশু নির্যাতনের মামলায় রুপান্তরিত হয়।

এই অসহায়াত্বের সুযোগ নিয়ে অভিযুক্ত সাংবাদিক হাসান আল মামুন পরর্বতীতে সুমী আক্তারকে তার বাসায় মাসিক ৫ হাজার টাকায় কাজ করার প্রস্তাব দিলে তার কথায় রাজী হয়ে বিগত ৮/৯ মাস পূর্ব যাবৎ বাসায় কাজ করা শুরু করে। এর পরই শুরু হয় অমানুষিক নির্যাতন কু-প্রস্তাব এবং ৩ বছরের শিশুকে মারধর করে ফ্রিজের ভিতর মাথা ডুকিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা।
গত ২২ এপ্রিল রাতে বাড়ি ঘরে হামলা করে ভাঙচুর করে। এছাড়াও বিভিন্ন ভাবে প্রাণ নাশের হুমকি ধমকি দিচ্ছে।

১৮ এপ্রিল অভিযুক্ত হাসান আল মামুন সুমী আক্তারকে তাহার স্বামীর সহিত মিলিয়ে দিবে এমন কথা বলে সুমী আক্তারের ননদ স্বাক্ষী লাবনী আক্তার ও সুমী আক্তারের স্বামী জহিরুল ইসলাম জনিকে অভিযুক্তদের বাড়ীতে আসতে বলে এবং সেই হিসেবে তারা হাসান আল মামুন এর বাসায় গেলে অভিযুক্তগণ সুমী আক্তারকে এবং সুমী আক্তারের ননদ লাবনী আক্তার ও সুমী আক্তারের স্বামী জহিরুল ইসলাম জনি প্রত্যেক কে পৃথক পৃথক কক্ষে আটকে রেখে সুমী আক্তারের নিকট ৮০ হাজার টাকা এবং লাবনী আক্তারের নিকট ৫ লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবী করে এবং তারা অভিযুক্তদের দাবীকৃত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে সুমী আক্তার ও লাবনী আক্তারকে বাহিরের লোকজন দিয়ে ধর্ষন করায় ও টাকা আত্মসাতের হুমকি দেয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে উল্লেখ করেন, উক্ত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলাটি মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনর্চাজ কে তদন্তের জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

সাংবাদিক সম্মেলন কালে উপস্থিত ছিলেন, সৈয়দ রাশেদ, মোঃ শাহ আলম, সুমী আক্তার, লাবনী আক্তার, আইয়ুব আলী, মোঃ সুমন, রিপন চৌধুরী, মোঃ রুবেল প্রমূখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss